শিল্প প্রতিষ্ঠানে সোলার পাইপ লাইট ব্যবহারের আহবান

মনজুর-এ আজিজ : দেশে বিদ্যমান সকল শিল্প কারখানাসহ বাংলাদেশ এক্সপোর্ট জোন অথরিটি (বেজা) কর্তৃক নতুন ১০০টি অর্থনৈতিক জোনের সকল কারখানায়ও সোলার পাইপ লাইট ব্যবহারের আহ্বান জানিয়েছেন এফবিসিসিআই সভাপতি আব্দুল মাতলুব আহমাদ। এসব কারখানায় দিনের বেলায় সূর্যের প্রাকৃতিক আলোর মাধ্যমে ১০-১২ ঘণ্টা সোলার পাইপ লাইট ব্যবহার করা গেলে ৩০ শতাংশ জ্বালানি সাশ্রয় সম্ভব হবে বলে মনে করেন তিনি।
বুধবার দুপুরে হোটেল সোনারগাঁওয়ে সাসটেইনল এন্ড রিনিউয়েবল এনার্জি ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (শ্রেডা), গিজ বাংলাদেশ ও চেঞ্জ আয়োজিত ‘সোলার পাইপ লাইট পাইলট প্রকল্প : শিল্প এরিয়াতে দিনের আলো ব্যবহার করার একটি কার্যকর উপায়’ শীর্ষক এক সেমিনারে এসব কথা বলেন তিনি।
আব্দুল মাতলুব আহমাদ বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের শিল্প, বড় বিল্ডিং ও হোটেলগুলোতে দিনের বেলায় সূর্যের আলো ব্যবহারের মাধ্যমে জ্বালানি সাশ্রয় করছে। তাদের অনুকরণে আমাদের দেশেও এসব প্রতিষ্ঠানে সোলার পাইপ লাইট ব্যবহার করতে হবে। আমাদের অনেক কারখানায় দিনে প্রায় ১ হাজার লাইট জ্বলে। এগুলোতে যদি সোলার পাইপ লাইটের মাধ্যমে সূর্যের আলো ব্যবহার করা যায় তাহলে একদিকে যেমন আমাদের খরচ কমবে অন্যদিকে জ্বালানির নিরাপত্তা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে। বিদেশের এসব প্রতিষ্ঠান থেকে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য তার প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে দুইজন পাইপ উদ্ভাবনকারীকে ভারত বা শ্রীলঙ্কাতে সফর করানোর প্রতিশ্র“তি দেন তিনি।
সভাপতির বক্তব্যে শ্রেডার চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম শিকদার বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে। সে সময় আমাদের ৪০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে হবে। এর ১০ ভাগই করা হবে নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে। এজন্য বর্তমান সরকার নবায়নযোগ্য জ্বালানির উপর বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে। আর এক্ষেত্রে তরুনদেরকেই তাদের উদ্ভাবনী শক্তি দিয়ে সোলারকে জনপ্রিয় করে তুলতে হবে।
সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনায় সোলার পাইপ লাইটের উদ্ভাবক সাজিদ ইকবাল বলেন, বাংলাদেশের সকল শিল্প প্রতিষ্ঠানে সোলার পাইপ লাইট ব্যবহার করা গেলে দিনের বেলায় ৩০ ভাগ জ্বালানি সাশ্রয় করা সম্ভব হবে। তিনি এ ব্যাপারে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, এসএমই ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান কে.এম হাবিব উল্লাহ, বাংলাদেশ সোলার এন্ড রিনিউয়েবল এনার্জি এসোসিয়েশনের (বিএসআরএ) সভাপতি দিপাল চন্দ্র বড়–য়া, সাসটেইনেবল এনার্জি ফর ডেভেলপমেন্ট (এসইডি)-এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার আল মুদাব্বির বিন আনাম, শ্রেডার সদস্য সিদ্দিক জোবায়ের প্রমুখ।